1. admin@ukbanglanews.com : UK Bangla News : Tofazzal Farazi
  2. belalmimhos@gmail.com : Bellal Hossen : Bellal Hossen
  3. kashemfarazi8@gmail.com : Abul Kashem Farazi : Abul Kashem Farazi
  4. robinhossen096@gmail.com : Robin Hossen : Robin Hossen
  5. tuhinf24@gmail.com : Firoj Sabhe Tuhin : Firoj Sabhe Tuhin
বুধবার, ০৪ অগাস্ট ২০২১, ০৬:১৯ পূর্বাহ্ন

অস্ট্রেলিয়ায় ইঁদুরের উৎপাতে বন্ধ হচ্ছে জেলখানা

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম : বুধবার, ২৩ জুন, ২০২১
  • ৩০ বার

অস্ট্রেলিয়ার নিউ সাউথ ওয়েলসে ইঁদুরের উপদ্রব কর্তৃপক্ষের মাথাব্যথার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। পরিস্থিতি মোকাবিলায় সেখানকার একটি জেলখানায় সংস্কার ও পরিচ্ছন্নতাকাজের জন্য কয়েক শ বন্দীকে অন্যত্র সরিয়ে ফেলতে হচ্ছে।

আজ মঙ্গলবার বিবিসির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ওয়েলিংটন সংশোধন কেন্দ্রের ৪০০–এর বেশি বন্দী এবং ২০০ কর্মকর্তা–কর্মচারীকে আগামী সপ্তাহের মধ্যে অন্যান্য জেলখানায় স্থানান্তর করা হবে।

ইঁদুর ওই জেলখানার অবকাঠামোর ব্যাপক ক্ষতি করেছে। এর মধ্যে অভ্যন্তরীণ অনেক তার কেটে ফেলার পাশাপাশি সিলিং প্যানেলেরও বড় ধরনের ক্ষতি হয়েছে।
শতকের পর শতক ধরে ইঁদুরের উপদ্রবে ভুগতে থাকা অস্ট্রেলিয়ার নিউ সাউথ ওয়েলস সাম্প্রতিক দশকগুলোর মধ্যে এবার সবচেয়ে খারাপ পরিস্থিতির মুখে পড়েছে।

অস্ট্রেলিয়ার দক্ষিণ-পূর্ব অঞ্চলে শস্যের ব্যাপক ফলনের সঙ্গে ইঁদুরের প্রজননও বেড়েছে। কয়েক মাস ধরে ওই অঞ্চলে ইঁদুরের পাল ধ্বংসযজ্ঞ চালিয়ে আসছে। ওই অঞ্চলের কৃষি খামারগুলোতেও ইঁদুরের উৎপাত চরম আকার নিয়েছে।

রাজ্যের কারা কর্তৃপক্ষ বলছে, চার মাসের বেশি সময় ধরে জেলখানা পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন ও সংস্কারের কাজ করা হবে। এ ছাড়া ইঁদুরের উৎপাত ঠেকাতে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
কারেক্টিভ সার্ভিস নিউ সাউথ ওয়েলসের কমিশনার পিটার সেভেরিন বলেন, তাঁদের জেলখানার ক্ষতি এতটাই বেশি হয়েছে যে তা কিছুদিনের জন্য খালি করে ফেলাই ভালো।

জেলখানার অধিকাংশ কর্মীকে পশ্চিমা রাজ্যগুলোর জেলখানায় নিয়োগ করা হবে। বন্দীদের বিভিন্ন জেলখানায় পাঠানো হবে, যার মধ্যে ম্যাকুয়ার কারেক্টিভ সেন্টারও রয়েছে।

সেভেরিন বলেন, ‘ইঁদুর কমা শুরু হলে পরবর্তী সমস্যা হিসেবে দেখা দেবে পরজীবী কীট। আমাদের কর্মী ও বন্দীদের এমন কিছুর সামনে দিতে পারি না, যা তাঁদের স্বাস্থ্যর ক্ষতি করতে পারে।’

সাম্প্রতিক সপ্তাহগুলোতে ইঁদুরের উৎপাত তীব্র হয়েছে বলে জানান তিনি।
স্থানীয় গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, ২০২০ সালে ফসল কাটার মৌসুম বসন্তে ইঁদুরের উৎপাত শুরু হয়। এর কারণ হিসেবে ইঁদুরের প্রজননের জন্য অনুকূল আবহাওয়ার পাশাপাশি ব্যাপক ফসল উৎপাদনকে চিহ্নিত করা হয়। বলা হচ্ছে, ইঁদুরের জন্য যথেষ্ট খাবার থাকা এবং গত খরার মৌসুমে শিকারি পশু–পাখির মৃত্যুর কারণে ইঁদুর বেড়ে গেছে।

নিউ সাউথ ওয়েলসের পাশাপাশি কুইন্সল্যান্ড, ভিক্টোরিয়া ও সাউথ অস্ট্রেলিয়ায়ও ইঁদুরের উৎপাত বেড়েছে।

বিশেষজ্ঞদের বরাতে অস্ট্রেলিয়ার এবিসি নিউজ বলেছে, রাজ্যগুলোতে লাখ লাখ ইঁদুর ছুটে বেড়াতে পারে। নিউ সাউথ ওয়েলসের পরিস্থিতি এতটাই খারাপ যে স্কুল, হাসপাতাল, সুপারমার্কেট, ঘরবাড়ি সবখানেই ইঁদুরের উৎপাত তীব্র হয়ে উঠেছে।
সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন কৃষকেরা, ফসলহানির পাশাপাশি কীটনাশক কিনতে তাঁদের খরচ বেড়ে গেছে।

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..
© All rights reserved © 2021 UK বাংলা News
Desing & Developed By SSD Networks Limited
error: Content is protected !!