1. admin@ukbanglanews.com : UK Bangla News : Tofazzal Farazi
  2. kashemfarazi8@gmail.com : Abul Kashem Farazi : Abul Kashem Farazi
  3. tuhinf24@gmail.com : Firoj Sabhe Tuhin : Firoj Sabhe Tuhin
বৃহস্পতিবার, ১৯ মে ২০২২, ০৯:২৯ অপরাহ্ন

গুজব ছড়ানো ভিডিওটি কলকাতা থেকে দেওয়া হয়েছে

রিপোর্টারের নাম
  • আপডেট টাইম : বুধবার, ২০ অক্টোবর, ২০২১
  • ১২৭ বার

গত ১৬ মে বিকেলে পল্লবীর সিরামিকস ফটকের কাছে দুর্বৃত্তরা শিশুপুত্রের সামনে তারা বাবা সাহিনুদ্দিনকে কুপিয়ে হত্যা করে। ওই ঘটনার ভিডিও ফুটেজ ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ে। আজ দুপুরে সেই ভিডিও ক্লিপটি নোয়াখালীর যতন সাহার বলে ফেসবুকে আপলোড করে গুজব ছড়ানো হয়।

আজ সন্ধ্যায় র‍্যাবের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (অপারেশনস) কর্নেল কে এম আজাদ এ নিয়ে  বলেন, তথ্যপ্রযুক্তির সহায়তায় র‍্যাব জানতে পেরেছে, সাহিনুদ্দিন হত্যাকাণ্ডের ভিডিও ক্লিপটি ভারতের কলকাতা থেকে দেবদৃতা ভৌমিক নামের একজন প্রথম ফেসবুক মেসেঞ্জারে ছড়িয়ে দেন। আর দেবদাস মণ্ডল কলকাতা থেকেই ওই ভিডিওটি টুইটারে আপলোড করে গুজব ছড়িয়ে দেন। কর্নেল কে এম আজাদ জানান, ওই গুজব ছড়ানোর ঘটনায় বাংলাদেশভিত্তিক কুশীলবদের গ্রেপ্তারে অভিযান চালানো হচ্ছে।

এর আগে আজ দুপুরে র‍্যাব সদর দপ্তরে আয়োজিত র‍্যাবের প্রযুক্তিগত আধুনিকায়ন কার্যক্রমের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান বলেছিলেন, ‘কিছুক্ষণ আগেই আমার দৃষ্টিগোচর হয়েছেন স্বার্থান্বেষী একটি মহল অপপ্রচার ও উসকানিমূলক প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছে। বিভিন্ন সময় ঘটে যাওয়া নৃশংস ঘটনার ভিডিও ফুটেজ ব্যবহার করে তারা সাম্প্রতিক সময়ে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্টের চেষ্টা করে যাচ্ছে। গত ১৬ মে রাজধানীর পল্লবীতে (সাহিনুদ্দিন হত্যা) একটি নৃশংস হত্যার ঘটনা ঘটে। দুই যুবক একজনকে চাপাতি দিয়ে নৃশংসভাবে কুপিয়ে হত্যা করছেন। সেই হৃদয়বিদারক ঘটনা দেখে সবার হৃদয় কেঁপে উঠেছে। সেই ঘটনার ভিডিও ফুটেজ ক্লিপ আকারে প্রচার করে একটি মহল নোয়াখালীর যতন সাহাকে একইভাবে হত্যা করা হয়েছে মর্মে অপপ্রচার করছে। বিষয়টি খুবই দুঃখজনক, ন্যক্কারজনক ও অমানবিকও বটে।’

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আরও বলেছিলেন, যারা এ ধরনের অপপ্রচার চালিয়ে ফায়দা লুটার চেষ্টা করছে, তাদের হুঁশিয়ার করে দিচ্ছি, তাদের অবশ্যই খুঁজে বের করা হবে। তাদের জবাব দিতেই হবে। আইনশৃঙ্খলা রক্ষকারী বাহিনী তাদের খুঁজে বের করে উপযুক্ত শাস্তির ব্যবস্থা করবে। জবাব দিতে হবে তাদের, কেন তারা সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি ও শান্তি বিনষ্ট করছে।

এদিকে আজ র‍্যাবের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, গত ১২ অক্টোবর ভারতের ত্রিপুরার কমলপুর এলাকার পূজামণ্ডপ ও দোকানপাটে আগুন লাগার ঘটনার একটি ভিডিও ফুটেজকে রংপুরের পীরগঞ্জের হিন্দুবাড়িতে আগুন দেওয়ার ভিডিও ফুটেজ বলে অপপ্রচারের মাধ্যমে বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছে চক্রান্তকারীরা। এ ছাড়া দেড় বছরের পুরোনো বিভিন্ন ঘটনাকে সাম্প্রতিক সময়ের ঘটনা বলে অপপ্রচার চালাচ্ছে একটি চক্র। এমন উসকানিমূলক ও বিভ্রান্তিকর তথ্যের মাধ্যমে অপপ্রচার চালানোর সঙ্গে জড়িত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে র‍্যাবের সাইবার নজরদারি ও গোয়েন্দা নজরদারি অব্যাহত রয়েছে।

র‍্যাবের বিজ্ঞপ্তিতে আরও বলা হয়, সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্ট করার জন্য গুজব ছড়ানো ও উসকানিদাতাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেবে র‍্যাব।

নিউজটি শেয়ার করুন..

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরো খবর..
© All rights reserved © 2022 UK বাংলা News
Design & Developed By SSD Networks Limited
error: Content is protected !!